Job Separation কি এবং কত প্রকার?

Types of Job separation
Types of Job separation & Final Payment

Job Separation কি এবং কত প্রকার? একজন শ্রমিকের কোন প্রতিষ্ঠান থেকে কি কি কারণে বা কিভাবে Job Separation হতে পারে এবং Separation এর ধরন ভেদে এর Payment কেমন হবে? এ সকল বিষয়ে পরিষ্কার ধারণা পেতে নিচের লেখাগুলি মন দিয়ে পড়ুন।

Job Separation কি?

Job Separation মানে চাকরীর বিচ্ছেদ ঘটা। সহজ ভাবে বলতে গেলে, যখন কোন শ্রমিকের তার প্রতিষ্ঠান থেকে চাকরী বিচ্ছেদ ঘটে বা চাকরীর চুক্তি শেষ হয়। এটা শ্রমিকে নিজের ইচ্ছায়ও হতে পারে আবার প্রতিষ্ঠান বা প্রতিষ্ঠানের মালিক শ্রমিককে বাধ্য করতে পারে।

Resign, Retirement এগুলো হলো শ্রমিকের নিজের ইচ্ছায় Job Separation এর উদাহারণ। আবার Dismissal, Removal, Termination, Retrenchment এগুলো হলো মালিকের ইচ্ছায় শ্রমিককে Job Separation এ যেতে বাধ্য করার উদাহারণ। নিচে প্রত্যেটি বিষয়ের বিস্তারিত আলোচনা করা হলোঃ

Job Separation এর প্রকারভেদ বা এটা কি কি ভাবে হতে পারে?

  • পদত্যাগ ( Resignation)
  • বরখাস্ত (Dismissal)
  • অপসারণ (Removal)
  • অবসান ( Termination)
  • ছাটাই (Retrenchment)
  • ডিসচার্জ (Discharge)
  • মৃত্যজনিত (Death)
  • অবসর (Retirement)

১। পদত্যাগ ( Resignation)

ধারা – ২৭ অনুযায়ী; কোন স্থায়ী শ্রমিক মালিক কে ৬০ দিনের লিখিত নোটিশ দিয়ে চাকুরী হতে ইস্তফা দিতে পারবেন।

কোন অস্থায়ী শ্রমিক যারা মাসিক মজুরী ভিত্তিতে নিয়জিত তারা ৩০ দিনের ও অনান্য শ্রমিক ১৪ দিনের লিখিত নোটিশ দিয়ে চাকুরী হতে ইস্তফা দিতে পারবেন।

যদি কোন শ্রমিক বিনা নোটিশে চাকুরি ছাড়তে চান তাহলে নোটিশ মেয়াদের জন্য সমপরিমান মজুরী মালিক কে প্রদান করে চাকুরী ছাড়তে পারবেন।

ক্ষতিপূরণ/ সুবিধা/ Payment: এই ধারার অধিনে কোন স্থায়ী শ্রমিক ইস্তফা দিলে , পাচ বছর বা তার অধিক সময় কিন্তু ১০ বছরের কম সময় চাকুরির জন্য প্রতি বছরের জন্য ১৪ দিনের মজুরী এবং ১০ বছরের অধিক সময়ের জন্য ৩০ দিনের মজুরী অথবা গ্রাচুইটি যেটি বেশি হয় সেটি ক্ষতিপুরন হিসেবে প্রদান করবেন । ক্ষতিপুরন অনান্য সকল সুবিধার অতিরিক্ত বলে বিবেচিত হবে ।

২। বরখাস্ত (Dismissal)

ধারা – ২৩ (১) অনুযায়ী; এই আইনের অধিনে কোন শ্রমিককে বিনা নোটিশে বরখাস্ত করা যাবে যদি তিনিঃ-

  • ফৌজদারী অপরাধে দন্ড প্রাপ্ত হন অথবা
  • ধারা ২৪ অনুযায়ী অসদাচরনের দায়ে দোষী সাব্যস্ত হন ।

ক্ষতিপূরণ/ সুবিধা/ Payment: এক্ষেত্রে, শ্রমিকেকে কোন প্রকার ক্ষতিপূরণ দেওয়া লাগবে না। তবে তার আইনানুগ অনান্য পাওনা যদি থাকে সেটা সে পাবে ।

৩। অপসারণ (Removal)

ধারা ২৩(২)ক ও ধারা ২৪ অনুযায়ী , অসদাচরনের দায়ে দোষী সাব্যস্ত শ্রমিক কে বরখাস্ত না করে অপসারন করা যাবে।

ক্ষতিপূরণ/ সুবিধা/ Payment: এক্ষেত্রে, শ্রমিকের চাকুরির মেয়াদ যদি অবিচ্ছিন্ন ভাবে এক বছর বা তার বেশি সময় হয় তাহলে মালিক তাকে প্রত্যক বছরের জন্য ক্ষতিপুরন বাবদ ১৫ দিনের মজুরী প্রদান করবেন , তবে উক্ত শ্রমিক মালিকের ব্যাবসা বা সম্পত্তি চুরি বা আত্নসাৎ, প্রতারণা ও প্রতিষ্ঠানে দাঙ্গা হাঙ্গামা অগ্নি সংযোগ , ভাঙচুর করলে ক্ষতিপুরন পাবেনা , তবে তার আইনানুগ অনান্য পাওনা পাবে ।

৪। অবসান (Termination)

ধারা – ২৬ এই ধারা অনুযায়ী; কোন মালিক শুধুমাত্র কোন স্থায়ী বা অস্থায়ী কর্মীকে বিনা কারনে চাকুরী থেকে অব্যাহতি প্রদান করতে পারেন। অনেকের ধারনা বাংলাদেশ শ্রম আইন অনুযায়ী খুব সম্ভাবত ৭ শ্রেণির কর্মীদেরকেই টার্মিনেইশন করা যায়।

না, শ্রম আইনের ২৬ ধারা অনুযায়ী শুধুমাত্র স্থায়ী এবং অস্থায়ী এই দুই শ্রেণীর কর্মীদের টার্মিনেইশন করা যায়।

ক্ষতিপূরণ/ সুবিধা/ Payment:

মাসিক ভিত্তিতে মজুরী গ্রহন করেন এমন যেকোন স্থায়ী কর্মীকে টার্মিনেইট করার জন্য ১২০ দিনের নোটিশ প্রদান করতে হবে অথবা ১২০ দিনের মূল মজুরী টাকা প্রদান করতে হবে।

স্থায়ী শ্রমিকের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা সাপ্তাহিক এবং দৈনিক ভিত্তিতে মজুরী গ্রহন করেন।উক্ত স্থায়ী শ্রমিকদেরকে টার্মিনেইট করার জন্য ৬০ দিনের নোটিশ বা ৬০ দিনের মূল মজুরী প্রদান করতে হবে।

অস্থায়ী কর্মীদের মধ্যে যারা মাসিক ভিত্তিতে মজুরী গ্রহন করেন তাদেরকে টার্মিনেইট করার জন্য ৩০ দিনের মূল মজুরী প্রদান করতে হবে অথবা ৩০ দিনের নোটিশ প্রদান করতে হবে।

অস্থায়ী শ্রমিকদের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা সাপ্তাহিক এবং দৈনিক ভিত্তিতে মজুরী গ্রহন করেন। তাদেরকে ১৪ দিনের নোটিশ প্রদান করতে হবে অথবা ১৪ দিনের মূল মজুরী প্রদান করতে হবে।

২৬ ধারা অনুযায়ী কোন স্থায়ী কর্মীকে অব্যাহতি প্রদান করলে তাকে ২৬(৪) ধারা অনুযায়ী প্রতি বছর কাজের জন্য এক মাসের মূল মজুরী প্রদান করতে হবে। যা শুধুমাত্র একজন স্থায়ী কর্মী পাবেন এবং ইহা অস্থায়ী কর্মীর জন্য প্রযোজ্য নয়।

৫। ছাটাই (Retrenchment)

ধারা – ২০ অনুযায়ী; প্রয়োজনের অতিরিক্ততার কারনে কোন প্রতিষ্ঠান হতে শ্রমিক ছাটাই করা যাবে , তবে কোন শ্রমিকের চাকুরির মেয়াদ অবিচ্ছিন্ন ভাবে এক বছর বা তার বেশি হয় তাহলে তাকে এক মাসের লিখিত নোটিশ দিতে হবে অথবা মজুরী প্রদান করতে হবে ।

ক্ষতিপূরণ/ সুবিধা/ Payment: উক্ত শ্রমিক কে প্রতি বছর চাকুরীর জন্য ক্ষতিপুরন হিসেবে ৩০ দিনের মজুরী অথবা গ্রাচুইটি যেটা বেশি হবে সেটা প্রদান করতে হবে ।

নোটিশের এক কপি প্রধান পরিদর্শক ও এক কপি সিবিএ যদি থাকে , দিতে হবে ।

* তবে নোটিশের প্রয়োজন হবেনা যদি উক্ত শ্রমিক কে ৪৫ দিন লে-অফের পরে আরো ১৫ দিন লে-অফ করাতে হয় তবে সে ক্ষেত্রে তাকে প্রতি বছর চাকুরির জন্য আরো ১৫ দিনের মজুরী প্রদান করতে হবে ।

* মালিক শ্রমিকের মধ্যে ভিন্ন কোন চুক্তি না থাকলে সর্বশেষ নিযুক্ত শ্রমিক কে ছাটাই করবেন ।

৬। ডিসচার্জ (Discharge)

ধারা – ২২ অনুযায়ী; কোন রেজিস্টার্ড চিকিৎসকের প্রত্যায়ন পত্র অনুযায়ী শারীরিক বা মানুষিক অক্ষমতা বা অব্যাহত ভগ্ন স্বাথ্যর কারনে চাকুরী হতে ডিসচার্জ করা যাবে ।

ক্ষতিপূরণ/ সুবিধা/ Payment: ডিসচার্জ কৃত শ্রমিক কে মালিক তাহার প্রত্যক বছর চাকুরীর জন্য ক্ষতিপুরন হিসেবে ৩০ দিনের মজুরী অথবা গ্রাচুইটি যেটি বেশি হয় সেটি প্রদান করবেন ।

৭। মৃত্যজনিত (Death)

ধারা – ১৯ অনুযায়ী; কোন শ্রমিক দুই বছর অবিছিন্ন ভাবে চাকুরীরত থাকা অবস্থায় মৃত্য বরন করলে মালিক তাহার মনোনিত ব্যাক্তি কে প্রত্যক বছরের জন্য বা উহার ছয় মাসের অধিক সময়ের জন্য ক্ষতিপুরন হিসেবে ৪৫ দিনের মজুরী অথবা গ্রাচুইটি যেটা বেশি হবে সেটা প্রদান করবেন, এই অর্থ মৃত শ্রমিক চাকুরী হতে অবসর গ্রহন করলে যে সুবিধা পেতেন তার অতিরিক্ত হিসেবে বিবেচিত হবে ।

৮। অবসর (Retirement)

ধারা – ২৮ অনুযায়ী; কোন শ্রমিকের বয়স ৬০ বছর পুর্ন হলে তিনি চাকুরি হতে স্বাভাবিক অবসর গ্রহন করবেন , ধারা ২৬(৪) অনুযায়ী অথবা প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব চাকুরী বিধি অনুযায়ী , অবসর প্রাপ্ত শ্রমিকের পাওনা পরিশোধ করতে হবে।

* এর পরে প্রতিষ্ঠান তাকে উপযুক্ত মনে করলে চুক্তি ভিত্তিক নিয়োগ দিতে হবে।

কিছু কথাঃ
পোষ্টটি ভালো লাগলে বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন। প্রতিটি চাকরীজীবিকে তাদের প্রাপ্য অধিকার সঠিক ভাবে ঝুজে নিতে হলে আগে অধিকারগুলো সঠিক ভাবে জানতে হবে। নিজে জানুন অন্যকে জানতে সহযোগীতা করুন।

HRBD

It's a Free online HR Portal of Bangladesh to support various HR related issues along with Job guides and Carrier development tips for our Bangladeshi Employees & Job seekers.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *